recent posts

কিভাবে ব্যবসার আইডিয়া খুঁজে বের করবেন।



অনেক সময় আমরা এমন লোকজনকে দেখতে পাই তাদের কাছে পর্যাপ্ত টাকা পয়সা হয়েছে কিন্তু ইনভেষ্ট করার জন্য বুদ্ধি খুজে পাচ্ছে না। যদি আপনার ক্ষেত্রেও এমনটা ঘটে থাকে তবে আপনাকে আমার এই পোস্টে ওয়েলকাম জানাচ্ছি।  আজকে আমরা কিভাবে ব্যবসার আইডিয়া নিজে নিজে খুঁজে বের করা যায় সে সম্পর্কে আলোচনা করব।  ব্যবসার আইডিয়া জন্য আপনাকে এত পেরেশান হতে হবে না আজকের এই আর্টিকেলটি আপনি মনোযোগ সহকারে পড়েন।  একটু চোখ কান খোলা রাখলেই ব্যবসায়ীক দৃষ্টিকোণ থেকে আমাদের চারপাশে পর্যবেক্ষণ করলে কিন্তু খুব সহজে আমরা ব্যবসার আইডিয়া বের করতে পারি।  চলুন দেখে নেয়া যাক কিভাবে আমরা আমাদের চারপাশে আমাদের ব্যবসায়িক দৃষ্টিকোণ থেকে পর্যবেক্ষণ করব।  বেশি বকবক না করে চলুন আমরা মূল কথায় চলে যাই।

আপনার চারপাশে অসংখ্য ঘটনা ঘটছে সে গুলোকে পর্যবেক্ষণ করুন

আমরা যদি আমাদের চোখ কান খোলা রেখে এবং আমাদের চারপাশে একটু ব্যবসায়ীক দৃষ্টিতে তাকাই তাহলে হাজার হাজার ব্যবসা আইডিয়া খুঁজে পাবো । আমাদের দেশ কোন কোন ব্যবসা করে উন্নতি করছে, অবশ্যই সবার আগে গার্মেন্টস শিল্পের কথা মনে পড়বে । ডিজিটাল যুগে কোন পণ্যের চাহিদা অনেক বেশি।  বর্তমানে আমাদের দেশে বিভিন্ন ধরনের অ্যাপ ডেভেলপমেন্ট এ ধরনের কাজের চাহিদা প্রচুর। অথবা এভাবে বলতে পারি আইসিটি সংক্রান্ত যে কোন পণ্য বা সেবার চাহিদা একদম তুঙ্গে রয়েছে। আবার আমাদের দেশে কৃষি খাতের উন্নয়নের জন্য সরকার নানা ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করছে।  এখান থেকেও আমরা অনেক ব্যবসা আইডিয়া বের করতে পারবো। ব্যবসা আইডিয়া খোঁজার জন্য আরেকটি চমৎকার বুদ্ধি হচ্ছে বিভিন্ন মেলায় অংশগ্রহণ করা।  অনেক সময় আমাদের দেশে এ ধরনের মেলার আয়োজন করা হয় একটু খোঁজ খবর রাখলেই আপনি যে কোন ধরনের মেলায় অংশগ্রহণ করতে পারবেন। আপনি চাইলে দেশের বাইরে ও বিভিন্ন বাণিজ্যিক মেলা গুলোতে অংশগ্রহণ করতে পারেন।

সমস্যা থেকে ব্যবসার আইডিয়া বের করুন 

সমস্যা থেকে অনেক ব্যবসা আইডিয়া বের করা যায়।  আপনি একটু চিন্তা করুন তো,  আমাদের দেশে কোন কোন সমস্যা গুলো আমাদেরকে বেশি ভোগাচ্ছে।  সবার প্রথম আমরা বলে উঠবো ট্রাফিক সমস্যা, এরপর একে একে বলব খাদ্যে ভেজাল, ঔষধে ভেজাল, প্রতিদিন সড়ক দুর্ঘটনা ঘটছে ইত্যাদি। তো এই সমস্যাগুলো সমাধানের মাধ্যমে কিভাবে ব্যবসা আইডিয়া বের করা যায় সেগুলো একটু চিন্তা করলেই হয়।  যারা ঢাকার প্রাণকেন্দ্রে বসবাস করে তাদের জীবনের প্রায় দশ বছর চলে যায় এই ট্রাফিক জ্যামের মধ্যে আটকে থেকে।  মানুষের এই অপচয় কৃত সময়কে কিভাবে কাজে লাগানো যায় সেখান থেকে কিন্তু আমরা আইডিয়া বের করতে পারি।  খাদ্যে ভেজাল ও সড়ক দুর্ঘটনা ইত্যাদি বিষয় গুলোকে একটু পর্যালোচনা করলেও আমরা এখান থেকে ব্যবসা আইডিয়া বের করতে পারবো।

আপনার শখ হতে পারে আপনার একটি ব্যবসা 

আপনি সবসময় যে কাজটি করতে ভালোবাসেন দেখবেন কেউ না কেউ সেই বিষয়ের উপর ব্যবসা করছে।  যদি আপনি আপনার ভালোবাসার বিষয়টিকে ব্যবসায় পরিণত করতে পারেন তাহলে কোনদিনও আপনাকে কাজ ক্লান্তি দিতে পারবে না।  আপনি হয়তো পাখি পোষতে ভালোবাসেন হয়তো গান গাইতে ভালোবাসেন কিংবা খেলাধুলা করতে ভালোবাসেন এমনও হতে পারে যে আপনি কম্পিউটারে ভালো নলেজ রাখেন এছাড়াও আপনি ভালো মার্কেটিং জানেন ।  এ ধরনের হাজারো গুন মানুষের মধ্যে থাকে। মানুষের সেই শখের গুণটিকে ব্যবসায় রূপান্তর করা খুবই সহজ। আপনি যদি আপনার শখের বিষয়টাকে ব্যবসায় রূপান্তর করতে পারেন তাহলে কিন্তু আর এত এত ব্যবসার আইডিয়া খুঁজে বের করার প্রয়োজন নেই। যে লোকটা পালন করতে পছন্দ করে সে কিন্তু মাছ চাষের ব্যবসা করতে পারে আবার যদি আপনি আকর্ষণীয় মাছ গুলো পোষতে ভালোবাসেন তাহলে আপনি একুরিয়ামের ব্যবসা শুরু করতে পারেন। আপনি যদি কম্পিউটারে ভালো গ্রাফিক্স ডিজাইন জানেন সেটা হতে পারে আপনার  একটি ব্যবসার খাত। চেষ্টা করুন নিজের পছন্দের বিষয়টি খুঁজে বের করার জন্য এবং সেটি নিয়ে অল্প অল্প করে এগিয়ে যান ইনশাল্লাহ একদিন আপনার ব্যবসা আপনার মুখ উজ্জ্বল করবে।

যে পন্যটি আপনার এলাকায় সবচেয়ে বেশি উৎপাদন হয় 

আপনার এলাকায় কোন কোন পন্য টি সবচেয়ে বেশি উৎপাদন হয় সেটি খুঁজে বের করুন।  আপনি যদি গ্রামে বসবাস করেন এবং এমন একটি গ্রামে বসবাস করেন যেখানে মাছ চাষ বেশি হয় তাহলে বুঝতে পারছেন এখানে আপনাকে কি করতে হবে।  দেখুন গ্রাম থেকে শহর পর্যন্ত অর্থাৎ ঢাকায় আসতে আসতে যে কোন পণ্যের দাম বেড়ে যায়। আপনি মফস্বল এলাকা গুলো থেকে যে কোন পণ্য সংগ্রহ করে সেটাকে কিভাবে অল্প খরচের মধ্যে ঢাকায় পৌঁছে দেওয়া যায় সে ব্যবস্থা করে একটা ভালো মানের ইনকাম করতে পারেন।  যদি ঢাকা শহরে বসবাস করেন তাহলে একটু খেয়াল করবেন ঢাকা শহরে পোশাক শিল্প কারখানা সবচেয়ে বেশি আপনি বুঝতে পারছেন আপনাকে কি করতে হবে। যে এলাকায় বসবাস করেন না কেন একটু বুদ্ধি খাটিয়ে ব্যবসা ব্যবসায়িক দৃষ্টিকোণ থেকে পর্যবেক্ষণ করলেই আপনি বুঝতে পারবেন যে আপনার এলাকায় কোন কোন টি সবচেয়ে বেশি উৎপাদন হয় এবং বাজারে সবচেয়ে বেশি চলে।  যদি সেটা বের করতে পারেন তাহলে আপনার জন্য ব্যবসা করা তেমন একটা কঠিন কাজ হবে বলে মনে হয় না।

আপনার এলাকায় নতুন কিছুর আবির্ভাব ঘটান

দেখুন আমাদের জীবনে এমন কিছু পণ্য অনেক সময় আবির্ভূত হয় যেটা ঢাকা শহরের মানুষেরা অনেক আগেই সুবিধা ভোগ করে কিন্তু গ্রামের লোকেরা অনেক পরে সেটার সুবিধা ভোগ করে। আবার অনেক সময় আমাদের দেশের বাইরে ও এমন কিছু পণ্য আবির্ভূত হয় যেটা আমাদের দেশে আসতে একটু সময় লাগে।  এক্ষেত্রেও আমরা যদি একটু খোঁজ খবর রাখি নতুন কিছুর আবির্ভাব ঘটে একটা ভালো ব্যবসা করে নিতে পারবে।  দেখুন আমাদের দেশে একটা সময় টিস্যু, টয়লেট ক্লিনার, মেয়েদের পেড,  রুম স্প্রে ইত্যাদি পণ্যগুলো ব্যবহার করতাম না। কিন্তু এ সকল পণ্যের ব্যবহার এখন দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে । এভাবে করে আমাদের দেশে হয়তো অনেক কিছুর প্রচলন এখনো হয়নি যা অনেক উন্নত দেশে হচ্ছে।  এভাবে নতুন কিছুর আবির্ভাব করাতে পারলে ইনশাআল্লাহ সেখান থেকে আমরা ভালো একটা ব্যবসার আইডিয়া বের করতে পারবো।

যেকোনো পণ্য কে কাস্টমারের কাছে সহজ ভাবে তুলে ধরুন

বাজারে নানান ধরনের পণ্য রয়েছে।  এই হাজারো পণ্যের মধ্যে কিছু কিছু পণ্য আমাদের দৈনন্দিন জীবনে সব সময় প্রয়োজন হয়।  সব সময় যা প্রয়োজন হচ্ছে সেটাকে যদি আমরা আরো সাবলীলভাবে আরো সহজভাবে আমাদের কাস্টমারের কাছে তুলে ধরতে পারি তাহলে সেখান থেকেও একা ব্যবসা করা যায় যেমন আমাদের দেশে ফুডপান্ডা নামে যে সার্ভিসটি চালু হয়েছে সেট এর উদাহরণ দেওয়া যায়।  আমরা সব সময় থেকে খাবার খাই এটা সত্য কথা কিন্তু তারা যে আইডিয়াটি নিয়ে এসেছে সেটি হচ্ছে কিভাবে এই রেস্টুরেন্টের খাবার গুলো মানুষের ঘরে পৌঁছে দেওয়া যায়।  যেই আইডিয়া সেই কাজ এবং সেই ধরনের সফলতা। তারপর দেখুন পাঠাও একটি নতুন আইডিয়া আবিষ্কার করল।  যেখানে আপনার একটি বাইক আছে কিন্তু সেটাকে যে অর্থ উপার্জনের মাধ্যম হিসেবে ব্যবহার করা যায় সেটা তারা দেখিয়ে দিয়েছে।

কিভাবে ব্যবসার আইডিয়া খুঁজে বের করবেন। কিভাবে ব্যবসার আইডিয়া খুঁজে বের করবেন। Reviewed by shorolmanush on August 13, 2019 Rating: 5

No comments:

Powered by Blogger.