গড়ে তুলুন কোয়েল পাখির ফার্ম দূর করুন ব্যাকারত্ব।




পড়াশোনা শেষ করে বেশিরভাগ ছাত্রছাত্রীরা গতানুগতিক চাকরি বা ব্যবসার আশায় বসে থাকে। এ সকল চাকরি বা ব্যবসার আশায় না থেকে আমরা যদি নিজেরাই আত্দকর্মসংস্থানের জন্য কিছু গঠনমূলক কাজ করি তাহলে আমাদের ভাগ্যের সঙ্গে সঙ্গে সমাজকেও আমরা কিছু উপহার দিতে পারব। এজন্য দরকার আত্ববিশ্বাস এবং পরিশ্রম ও নিষ্ঠা। সমাজে এমন অনেক ব্যতিক্রমী পেশা রয়েছে যেখানে একটু পরিশ্রম ও চিন্তাভাবনা নিয়ে কার্যক্রম পরিচালনা করলে সফলতা দরজায় এসে কড়া নাড়বে।

বাংলাদেশে এখন সফল কোয়েল পাখির ফার্মের সংখ্যা অনেক। দিন দিন এর চাহিদা ও বাজার বাড়ছে। একদিকে যেমন এ থেকে আদর্শ খাবার হিসেবে ডিম, আমিষের চাহিদা মেটাতে মাংস এবং জৈব সার পাওয়া যাবে বিষ্ঠা। তেমনি অন্যদিকে এ খাত থেকে বেশ ভালো আয় করাও সম্ভব। তবে এক্ষেত্রে অবশ্যই আপনাকে অল্পবিস্তর জ্ঞান থাকতে হবে। সবচেয়ে ভালো হয় কোনো প্রতিষ্ঠান থেকে স্বল্প বা দীর্ঘমেয়াদি প্রশিক্ষণ নিলে।

প্রাথমিক প্রয়োজন : যেকোনো কিছু গড়তে সবার আগে প্রয়োজন প্রাথমিক প্রস্তুতি। এ প্রস্তুতির উপর নির্ভর করে যে কোনো কাজের সফলতার ও ব্যর্থতা। কোয়েল পাখির ফার্ম গড়ে তুলতে প্রয়োজন আর্থিক সঙ্গতি, অভিজ্ঞতা ও পাখির নিরাপদ আশ্রয়। প্রথমেই বিশাল ফার্ম তৈরিতে হাত না দিয়ে ছোট পরিসরে কাজে হাত দেওয়া ভালো। ৫০০ থেকে ১০০০ টি কোয়েল পাখি নিয়ে যাত্রা করে আস্তে আস্তে ফার্মকে সম্প্রসারণ করাই উত্তম।যারা নতুন কোয়েল পাখির খামার করবেন তাদের জন্য খামার ব্যাবস্থাপনাঃ

আপনার কোয়েল পাখির খামার করার জন্য চাই প্রবল মনোবল আর সামান্য কিছু পুঁজি। প্রথমে চাই ছোট পরিশরে একটি খামার ঘড়। আর ঘড় তৈরি সময় একটা কথা ১' বর্গ ফিট স্থানে ৬ - ৮ টি কোয়েল পাখি পালন করা যায় তাই আমরা ১০' ফিট প্রস্থ, ১৬' ফিট দৈঘ ও ৮ ফিট উচ্চতার ঘড় তৈরি করবো। ঘড়ের মেঝে মাটি থেকে ১' ফিটের বেশী উঁচু হলে ভালো হয়।আর মেঝে থেকে ১৮" ইন্চ দেয়াল এবং তার উপর থেকে নেট বা স্টিলের জাল ব্যবহার করতে হবে। ঘড়ের চার পাশে পর্দার থাকবে।

কোয়েল পপাখির বাচ্চার পরিচর্যাঃ

প্রথমে বাচ্চার জন্য মেঝে পরিষ্কার করে তার উপর ১" পরিমান মত কাঠের গুড়ি বা ধানের তুষ দিতে হবে। এর উপরে পেপার কাগজ বিছাতে হবে। এবার বাচ্চার পরিমান অনুযাই ১৮" ইন্চ উচ্চতার শীট দিয়ে বেড়া দিতে হবে। এই বেড়ার ভিতরে কোয়েল পাখির বাচ্চা কৃতিম তাপ দিতে হবে ৩৫ ডিঃ সেঃ থেকে ৩০ ডিঃ সেঃ প্রযন্ত ৪ সপ্তাহ। এর ভিতর বাচ্চার জন্য খাবার পাত্রে সুষম খাদ্য ও পানির পাত্রে খাবার পানি সর্বরাহ করতে হবে। ২ সাপ্তাহ পর কোয়েল পাখির নিচ থেকে পেপার কাগজ সরিয়ে ফেলতে হবে। ৪ সপ্তাহের পর কৃতিম তাপের দরকার নেই। এবার পাখি মুক্ত ঘড়ে ছেড়ে লালন পালন করা যাবে। সাধারনত কোয়েল পাখি ৪০ দিনে ডিম দেয়। তাই ডিম দেয়ার আগে কোয়েল পাখির জন্য উচ্চ প্রটিন যুক্ত খাবর সর্বরাহ করতে হবে। আর ডিম দেয়ার সময় কম প্রটিন যুক্ত খাবার দিতে হয়।

কমেন্ট করুন

0 Comments