নারী উদ্যোক্তাদের জন্য একটি অসাধারণ বিসনেস আইডিয়া!

 


এই পর্যন্ত প্রায় শতাধিক জরিপে এটা প্রমান হয়েছে যে মেয়েদের জন্য অনলাইন নির্ভর যেকোন বিজনেস সব চাইতে বেশী নিরাপদ।কারন একমাত্র অনলাইন নির্ভর বিজনেসে অল্প পুঁজি বিনিয়োগ করে অধিক মুনফা করা সম্ভব।আপনি যদি একজন মেয়ে হন আর আপনি যদি কোন অফলাইন নির্ভর বিজনেস করতে চান তাহলে এর যা ঝুঁকি এবং প্রেশার তা একজন মেয়ের পক্ষে নেওয়া কখনই সম্ভব না।অফলাইন বিজেনেসের তুলনায় অনলাইন নিরভর বিজনেসে ততটা ঝুঁকি এবং প্রেশার নিতে হয় না/নেই বললেই চলে।মেয়েরা অনলাইনে করতে পারে এমন কয়েকটি বিজনেসের আইডিয়া নিয়ে আমাদের আজকের আর্টিকেল।

মেয়েরা অফলাইনে অনেক ধরনের বিজনেস করতে পারলেও সবাই অনলাইনে বিজনেস করে আয় করার সুযোগ খুঁজে থাকে।সাম্প্রতিক এক জরিপে দেখা গেছে গত বছর গুলো থেকে সুধু এই বছরে অনলাইন বিজনেসের পরিমান বেড়েছে ২৪.৮% ।এবং এই সময়ে ২.৩০৪ ট্রিলিয়ন ডলার সমপরিমাণ মূল্যর প্রোডাক্ট সুদু অনলাইনে বিক্রি হয়েছে।এবং মোট বিক্রির ৫৮.৯% মোবাইল ফোনের মাধ্যমে হয়েছে।সুতরাং এই জরিপ থেকেই বুঝা যায় অনলাইন বিজনেসের ভবিষ্যৎ কতটা ভালো।

এই জরিপ এর পর ধারনা করা হচ্ছে,২০২০ সালের ভেতর সকল বিজনেসের ৮০% অনলাইন নির্ভর হয়ে যাবে এবং এর মধ্য কমপক্ষে ৭৫% ক্রয়-বিক্রয় মোবাইল ফোন ব্যাবহার করে করা হবে।যেহেতু ক্রেতার অনলাইন কেনা-কাটার উপর আস্থা বাড়ছে,সেহেতু মেয়েদের উচিত হবে অনলাইন বিজনেস সম্পর্কে ভালো ভাবে আইডিয়া নিয়ে এই বিজনেসে আসা।আর আমরা আজকে এই আর্টিকেলে আলোচনা করব কোন ধরনের অনলাইন বিজনেস একজন মেয়ের জন্য উপযুক্ত।

বর্তমান সময়ে আপনি খুঁজে একজনও এমন মেয়ে পাবেন না যে কিনা তার নিজের ত্বকের যত্ন করে না।আর এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে আপনি অনলাইন নির্ভর কসমেটিক্স বিজনেস স্টার্ট করতে পারেন।আর এই বিজনেসের টার্গেট ক্রেতা মেয়ারাই,সুতরাং একজন মেয়ে এই বিজনেস খুব সহজেই অপারেট করতে পারে।কারন মেয়েরা তাদের প্রোডাক্ট গুলো একজন মেয়ে বিক্রেতার কাছে থেকেই কিনতে পছন্দ করে।

মানুষ আগের মত আর কষ্ট করে সশরীরে উপস্থিত হয়ে মার্কেটে কেনা-কাটা করতে যায় না।কারন এখন প্রায় সব কিছু অনলাইনে সহজেই মাত্র কয়েকটা ক্লিক করে কেনা যায়।আপনি যদি অনলাইনে জামা কিনতে চান তাহলে সুধু ফেসবুকেই সার্চ দিয়ে অগণিত অনলাইন জামা বিক্রেতা পাবেন।যেখানে পাবেন আপনার পছন্দের প্রায় সব জামা।সুধু অর্ডার করে বাড়িতে বসে থাকবেন।ঢাকার ভেতর হলে মাত্র কয়েক ঘণ্টায় আপনার চাহিদা মাফিক প্রোডাক্ট পেয়ে যাবেন।আর ঢাকার বাহিরে হলে এক থেকে দুই দিন সময় লাগতে পারে।আপনিও চাইলে অনলাইনে একটি জামা-কাপড় এর দোকান খুলে বসতে পারেন এখনি।

এবার আপনাকে একটা সহজ প্রশ্ন করি,আপনি কি খাবার খেতে ভালবাসেন?এটার উত্তর হল হ্যাঁ।কারন মানুষ স্বভাব-সুলভ ভাবেই খাবার খেতে ভালবাসে।মানুষ আগে কখনও-সখনও বাহিরে খেতে যেত।এখন মাঝে মাঝেই বাহিরে খাবার খেতে যায়,হোক সেটা বাধ্য হয়ে বা সখ করে।আর এই সুযোগকে ব্যাবহার করেই অঙ্কেই বিজনেস করছে।যার একটি উধাহরন হল ফুড পাণ্ডা।

No comments: