কেন ভিপিএন ব্যবহার করবেন তা জেনে নিন !!!

why you should use vpn
কেমন আছেন সবাই আশা করি সবাই অনেক ভাল আছেন। আজকে আপনাদের সামনে কথা বলব গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে যেটি হচ্ছে VPN. আসলে এই জিনিসটি কিভাবে কাজ করে বা আমরা কেন ব্যবহার করি সেই বিষয়ে আজকে আপনাদেরকে বিস্তারিত ধারণা দিবো। প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত পড়তে থাকুন এবং আমাদের সাথেই থাকুন।

ভিপিএন কি? What is VPN?

ভিপিএন কি ভিপিএন কেন ব্যবহার করবো সেরা ও নিরাপদ ভিপিএন কোনটি এমন প্রশ্ন করে তাহলে শুনুন ভিপি এন মানে হচ্ছে ভার্চুয়াল প্রাইভেট নেটওয়ার্ক সবচেয়ে ভালো ভিপিএন বা সম্পর্কে আমি নিচে আলোচনা নিয়ে আলোচনা করব আপনারা দেখতে থাকুন ঃ

VPN আমরা সাধারণত ব্যবহার করি যখন আমাদের কোন একটি সার্ভার ডাউন থাকে তখন। সার্ভার ঢুকতে পারি না সেক্ষেত্রে। অর্থাৎ আমরা বাংলাদেশে বসবাস করি এবং আমাদের বাংলাদেশ এর সাইবার আইন অনুযায়ী যে ওয়েবসাইটগুলো ব্লক করা সেসব ওয়েবসাইটগুলোতে ঢোকার জন্য আমরা VPN ব্যবহার করে থাকি।

VPN কি? VPN কিভাবে কাজ করে, ভিপিএন দিয়ে কি করা হয়

 এছাড়াও বিভিন্ন সময় নেট স্পিড স্লো থাকলে আমরা ভিপিএন ব্যবহার করে নেট স্পিড বাড়িয়ে নিতে পারি। কিন্তু সচরাচর আমরা সবাই এই ভিপিএন ব্যবহার করে থাকি বাংলাদেশের বাংলাদেশ থেকে ব্লক হওয়া বিভিন্ন ধরনের ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার জন্য।

 ভিপিএন কিভাবে কাজ করে সেটি যদি আপনারা জানতে চান তাহলে এখনি পড়তে থাকুনঃ

 সাধারণত আমরা যখন আমাদের এন্ড্রয়েড ফোনে কোন ভিপিএন অ্যাপস ইন্সটল করি, তখন আমরা অ্যাপসটিতে যখন লগইন করি তখন আমরা অ্যাপসটি ওপেন করি এবং ওপেন করার সাথে সাথে অ্যাপসটি আমাদেরকে সরাসরি অন্য একটি country তে কনভার্ট করে ফেলেন.

VPN DOWNLOAD করা যায় TOP 5 VPN INBANGLADESH

 অর্থাৎ আমরা যদি বাংলাদেশে থাকে তাহলে সে আমাদেরকে সরাসরি কানেক্ট করবে যুক্তরাষ্ট্র আমেরিকা অন্যান্য দেশের সাথে। অর্থাৎ যখন আমি আমার ডিভাইসটিতে ভিপিএন করব তখন আমি আর বাংলাদেশ থাকবো না আমি অন্য কোন দেশ থেকে তখন ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারব ।

অতি শীঘ্রই আপনারা জেনেছেন যে বর্তমানে 26 শে মার্চ একটি গন্ডগোলের কারণে ফেসবুকে কিছু সমস্যা দেখা দিয়েছে অনেকেই ফেসবুকে ঢুকতে পারছিলেন না ।তারাও কিন্তু সে ভিপিএন ব্যবহার করে ফেসবুক চালিয়েছেন কারণ তখন বাংলাদেশের সার্ভার থেকে ফেসবুক খানিক সময়ের জন্য ব্লক করে দেওয়া হয়েছিল যার কারণে বাংলাদেশ ইউজাররা তখন ফেসবুকে ঢুকতে পারছে  না ।

জন্য এবং তাদের মধ্যে কিছু লেজেন্ড কিছু সেই ভিপিএন ইউজ করে বিভিন্ন ব্যবহার করে তারা ফেসবুক চালিয়েছেন ।আশা করি আপনারা ভিপিএন সম্পর্কে বিস্তারিত পৌঁছে গিয়েছেন পৌঁছে গিয়েছেন বুঝে গিয়েছেন।

প্রথমত Tanel bair ভিপিএন

how to work vpn
 বর্তমানে সবচেয়ে ভালো ভিপিএন গুলোর মধ্যে এটি একটি ডিজাইন অনেকটা হালকা এবং সিম্পল। কিন্তু এটার ডিজাইন হালকা হলেও এ বিপিনের কর্মদক্ষতাকে হালকাভাবে নেয়া উচিত নয় কারণ কথায় আছে ছোট মরিচের ঝাল বেশি ।

তেমনভাবেই এই ভিপিএন কিন্তু প্রচুর পরিমাণে রয়েছে এটিফ রিসোর্স অর্থাৎ বিনামূল্যে ব্যবহার করা যায় এরকম একটি ভিপিএন তবে এটি বিনামূল্যে সংরক্ষণের জন্য কিছু লিমিটেশন রয়েছে সোশ্যাল সাইটে প্রমোশন করা হয়েছে প্রমোশন লিংক শেয়ার করে ফ্রি আপডেট করতে পারেন ।

ভিপিএন কি নিরাপদ? এবং ভিপিএন এর ক্ষতিকর দিক গুলো জানতে পারবেন.
 vpn রয়েছে মূল বিষয় হিসেবে রয়েছে
  •  ব্যক্তিগত ব্রাউজিং অর্থাৎ আপনার ডেটা সুরক্ষিত রাখার জন্য আপনি আপনার আইপি অ্যাড্রেস লুকিয়ে রাখতে পারবেন
  •  ট্র্যাকার বাকিং অর্থাৎ ওয়েবসাইটের টাকাগুলো ব্লক করে রাখতে পারবেন 
  • বাইপাস ক্রান্টি সেনসর্শিপ অর্থাৎ যেসব ওয়েবসাইটে অ্যাক্সেস করা নিষেধ সত্ত্বেও আপনি যেতে পারবেন অনায়াসে

 দ্বিতীয়তঃ  Hotspot slid VPN

কেন ভিপিএন ব্যবহার করবেন তা জেনে নিন
 আপনি যদি আমার মত একটি ফ্রি ভিপিএন খুঁজে থাকেন তাহলে এটি হবে আপনার জন্য একটি সোনার ডিম পাড়া হাঁস কারণ,, ভিপিএন একটি ফ্রি ভিপিএন এটি অনেক স্ট্রং এবং খুব সহজে ব্যবহার করা যায়।
 বর্তমানে ভিপিএন সার্ভিসে 500 প্লাস মিলিয়ন ব্যবহারকারী রয়েছে কোন ভিপিএন সবচেয়ে ভালো প্রশ্নের উত্তর আসবে ।
  • এদের মূল বৈশিষ্ট্য গুলো হচ্ছে ওয়েবসাইট আনব্লক অর্থাৎ যেকোন ধরনের ব্লক করা সাইট গুলোকে অ্যাক্সেস করা সম্ভব
  •  দ্বিতীয়তঃ আইপি অ্যাড্রেস আপনার অনলাইনে কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ থেকে শুরু করে আপনার আইপি অ্যাড্রেস এর সুরক্ষা নিশ্চিত করেন এই ভিপিএন
  •   ওয়াইফাই নিরাপত্তা এবিপি সাহায্যে আপনি কারো দ্বারা ট্র্যাক না হয়ে ব্রাউজার ইচ্ছামত ব্যবহার করতে পারবেন
  •  এছাড়াও ওপেন পাবলিক ওয়াই-ফাই বাদ যেগুলো অসুরক্ষিত ওয়েবসাইট সেগুলো ব্যবহার করতে পারবেন সম্পূর্ণ নিরাপদ ভাবে 
তারপরে কথা বলবো যে, নেট ভিপিএন নিয়ে জয়েন্ট হল একটি লাইটওয়েট ব্রাউজার। এর কোন সাইন আপ নেই এবং শুধু আপনি আপনার ই-মেইল ব্যবহার করে সুরক্ষিত এবং ব্যক্তিগত ব্রাউজিং শাবিতে পারবেন এটির সাহায্যে এটি একটি ফ্রি সাবস্ক্রিপশনের ভিপিএন ব্যবহার আশা করি আমরা সবাই জানি।

তৃতীয়ত রয়েছে  AVIRA VPN

 সবচেয়ে ভালো বিপিনে তালিকাতেও কিন্তু রয়েছে এটি বিনামূল্যে দেওয়া এবিপিএন ক্যামেরা প্রতিমাসে 500 এমবি ব্রাউজার দিয়ে থাকি। যেটা পিসি এবং স্মার্টফোনটি ব্যবহারযোগ্য শুধু তাই নয় এর আছে দুর্দান্ত কিছু বৈশিষ্ট্য নিচে দেওয়া হল।
ট্রাফিক অ্যাকসিডেন্ট ব্যক্তিগত  জিও রেজিস্ট্রি সাকসেস সক্রিয়ভাবে ওয়াইফাই নেটওয়ার্ক সংযুক্ত

অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনের জন্য সবচেয়ে বিশ্বাসযোগ্য এবং সবচেয়ে ভালো ভিপিএন হচ্ছে 1.1.1.1পয়েন্ট  ভিপিএন যাকে আমরা সুপার ভিপিএন নামে চিনি. ছিটিয়ে দিন দিন জনপ্রিয় হয়ে উঠছে চাইলে আপনিও ব্যবহার করে মজা নিতে পারেনি ভি প্রিন্টের কারণ এটি মোবাইলের জন্য সেরা ভিপিএন

চতুর্থত রয়েছে OPERA 

কেন ভিপিএন ব্যবহার করবেন তা জেনে নিন

হ্যাঁ নামটা দেখে হয়তো অনেকেই অবাক হবেন। কিন্তু অপেরা তাদের সর্বশেষ ভার্সন টিতে এড ব্লকার ও ভি পি এন সিস্টেম চালু করেছে।ব্রাউজার এর মধ্যেই ভি পি এন কাজ করে।যদি ইউজার ভি পি এন এর জন্য অন্য কোন থার্ড পার্টি এপ্লিকেশন ইনস্টল করতে না চায় তাহলে এটা খুব ভালো কাজ করবে। OPERA ভিপিএন টি ভাল লাগলে এখান থেকে ক্লিক করে আপনার ডিভাইসে সংযুক্ত করতে পারবেন। 

পঞ্চমত রয়েছে  PRIVATE TUNNEL

কেন ভিপিএন ব্যবহার করবেন তা জেনে নিন
প্রাইভেট টানেল এই ভি পি এন এপ টি সমস্ত রকম প্ল্যাটফর্ম যেমন ঐইন্ডোজ , এন্ড্রোয়েড,এই ও এস ও ম্যাক এ সহজলভ্য ।প্রাইভেট টানেল এর সেরকম কোনো ফ্রি সার্ভিস নেই। কিন্তু এটি প্রথম একমাস ব্যবহারকারী কে ফ্রি ট্রায়াল দেয়।  সেরা দশটি ভিপিএন থেকে যদি PRIVATE TUNNEL টি আপনার পছন্দ হয় তাহলে এখানে চাপুন আর ডাউনলোড করুন।

ষষ্ঠত রয়েছে TUNNEL BEAR 

কেন ভিপিএন ব্যবহার করবেন তা জেনে নিন

টানেল বিয়ার ও ভি পি এন সার্ভিস গুলির মধ্যে বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করেছে।এর ইন্টারফেস ভীষণ সুন্দর দেখতে।এছাড়াও ২২ টা দেশের বেশি সার্ভার এর সাথে যুক্ত হওয়া যায় এবং এর ব্রাউজিং স্পিড ও নিরাপত্তা ও খুব ভালো । কিন্তু টানেল বিয়ার এর ফ্রি ভার্সন মাস প্রতি মাত্র ৫০০ এম বি ডেটা ব্যবহার করতে দেয়।  আপনি যদি আপনার কাংখিত TUNNEL BEAR VPN খুঁজে পেয়ে থাকেন তাহলে এখানে ক্লিক করে ডাউনলোড করে নিন। 
কেন ভিপিএন ব্যবহার করবেন তা জেনে নিন

সপ্তমত রয়েছে HIDE.ME 

হাইড ডট মি একটি ফ্রি ভি পি এন সার্ভিস প্রোভাইডার।এই কোম্পানি প্রতি মাসে ২ জি বি ডেটা ব্যবহার এর জন্য দেয়। এখানে ডেটা লিমিট এর সাথে সাথে ডিভাইস কানেকশন ও লোকেশনেও ব্যবহারে সীমাবদ্ধতা আছে। ফ্রি ভার্সন টি তে শুধুমাত্র তিনটি সার্ভার লোকেশন বেছে নেওয়া যায়।এছাড়াও সাত দিনের একটি ফ্রি ট্রায়াল দেওয়া হয় ব্যবহারকারী কে।  অনেক খোঁজাখুঁজির পর যদি আপনি আপনার পছন্দের HIDE.ME VPN টি এখানে পেয়ে থাকেন তাহলে এখানে চাপুন আর ডাউনলোড করে আপনার ডিভাইসে ইন্সটল করুন । 

Download Best VPN | Top ten best VPN for Windows or Android | Superfast VPN

তো আমি ভিপিএন সম্পর্কে আপনাদেরকে সম্পূর্ণ ধারণা দেওয়ার জন্য আমি আর্টিকেলটি ছোট করেছি আশাকরি আপনারা খুব সহজেই বুঝতে পারবেন।

 আমার কথা অযথা অন্য কোন ওয়েবসাইটে ঘোরাঘুরি না করে আশা করি আপনারা আমার কন্টাক্ট গুলো পড়বেন কারণ আমি আপনাদেরকে যেভাবে কনটেন্টগুলো উপহার দেশেগুলোতে কথার থেকেও কাজ বেশি রয়েছে

 অর্থাৎ আমি অল্প কথায় আপনাদেরকে বুঝিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে যখনই আমার কন্টাক্ট গুলো ছোট হয় তাই অবশ্যই কন্ট্যাক্ট কেমন হয়েছে সেটি বিষয়ে মতামত জানাবেন এবং আমাদের পাশে থাকবেন এবং অবশ্যই অবশ্যই কনটেন্ট শেয়ার করবেন তাহলে আমরা আপনাদের জন্য আরো নতুন নতুন কনটেন্ট নিয়ে আসতে পারবো এবং আপনাদের উপকারে আসবে ধন্যবাদ

কমেন্ট করুন

0 Comments