T20 World Cup 2021 এর সময়সূচী । ICC Cricket T20 World Cup 2021 Schedule

 

T20 world cup 2021 time schedule

আইসিসি t20 ওয়াল্ড কাপ ২০২১ সালের সপ্তম আসর আয়োজন এর সম্ভাব্য তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে অক্টোবর ২০২১ থেকে নভেম্বর ২০২১পর্যন্ত । যদিও এই খেলাটি অস্ট্রেলিয়াতে ১৮ অক্টোবর থেকে ১৫ই নভেম্বর ২০২১ সালের অনুষ্ঠান হওয়ার কথা ছিল।  কিন্তু সে বছর করোনা মহামারীর কারণে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল  ২০২১ সাল পর্যন্ত খেলার স্থগিত রাখে। ২০২০ সালের আগস্ট মাসে আইসিসি ইন্ডিয়াতে টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠান আয়োজন করার ঘোষণা প্রদান করে।  তারই ধারাবাহিকতায় এ বছর আইসিসি টি-টোয়েন্টি ওয়ার্ল্ড কাপ ভারতে অক্টোবর ২০২১ থেকে শুরু করে নভেম্বর ২০২১ পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

 আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থা এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত পৌঁছেছে যে এবারের খেলা ইন্ডিয়ায় অনুষ্ঠিত হবে কিন্তু খেলার ভেন্যু সম্পর্কে এখনো পর্যন্ত চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দিতে পারিনি অথবা দেয়নি । করণা মহামারীর কারণে ভারতে ইতিমধ্যে আইপিএল ২০২১ সালের খেলা স্থগিত হয়েছে তারপরেও বিসিসিআই টি-টোয়েন্টি ওয়ার্ল্ড কাপ অনুষ্ঠান আয়োজন করার জন্য সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাবে। 

এটা চমৎকার বিষয় হচ্ছে ধারাবাহিকভাবে দুইটি টি-টোয়েন্টি ওয়ার্ল্ড কাপ খেলা  আয়োজন এর সম্ভাবনা রয়েছে একটি ২০২১ সাল এবং অপরটি ২০২২ সালে।  আইসিসি কন্ট্রোল বোর্ড 2018 সালের খেলাটি 2021 সালে আয়োজন করার ঘোষণা দিয়েছিল পাশাপাশি চ্যাম্পিয়ন ট্রফি ২০২১ সালের খেলাটি ২০২২ সালে অস্ট্রেলিয়াতে আয়োজন করার সম্ভাবনা রয়েছে। 

আইসিসি ক্রিকেট ওয়ার্ল্ড কাপ 2021 সালের সময়সূচী

যদি সবকিছু ঠিকঠাক থাকে তাহলে নিচের তালিকা অনুযায়ী এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলা অনুষ্ঠিত হবে। 

তারিখ বাংলাদেশ সময় ম্যাচ ভেন্যু ফলাফল
২৩ অক্টোবর বিকেল ৪টা অস্ট্রেলিয়া-দক্ষিণ আফ্রিকা আবুধাবি
২৩ অক্টোবর রাত ৮টা ইংল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজ দুবাই
২৪ অক্টোবর বিকেল ৪টা এ১-বি২ শারজাহ
২৪ অক্টোবর রাত ৮টা ভারত-পাকিস্তান দুবাই
২৫ অক্টোবর রাত ৮টা আফগানিস্তান- বি১ শারজাহ
২৬ অক্টোবর বিকেল ৪টা দক্ষিণ আফ্রিকা-ওয়েস্ট ইন্ডিজ দুবাই
২৬ অক্টোবর রাত ৮টা পাকিস্তান-নিউজিল্যান্ড শারজাহ
২৭ অক্টোবর বিকেল ৪টা ইংল্যান্ড- বি২ আবুধাবি
২৭ অক্টোবর রাত ৮টা বি১-বি২ আবুধাবি
২৮ অক্টোবর বিকেল ৪টা অস্ট্রেলিয়া-এ১ দুবাই
২৯ অক্টোবর বিকেল ৪টা ওয়েস্ট ইন্ডিজ- বি২ শারজাহ
২৯ অক্টোবর রাত ৮টা পাকিস্তান-আফগানিস্তান দুবাই
৩০ অক্টোবর বিকেল ৪টা দক্ষিণ আফ্রিকা- এ১ শারজাহ
৩০ অক্টোবর রাত ৮টা অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ড দুবাই
৩১ অক্টোবর বিকেল ৪টা আফগানিস্তান- এ২ আবুধাবি
৩১ অক্টোবর রাত ৮টা ভারত-নিউজিল্যান্ড দুবাই
১ নভেম্বর রাত ৮টা ইংল্যান্ড- এ১ শারজাহ
২ নভেম্বর বিকেল ৪টা দক্ষিণ আফ্রিকা- বি২ আবুধাবি
২ নভেম্বর রাত ৮টা পাকিস্তান-এ২ আবুধাবি
৩ নভেম্বর বিকেল ৪টা নিউজিল্যান্ড-বি১ দুবাই
৩ নভেম্বর রাত ৮টা ভারত-আফগানিস্তান আবুধাবি
৪ নভেম্বর বিকেল ৪টা অস্ট্রেলিয়া-বি২ দুবাই
৪ নভেম্বর রাত ৮টা ওয়েস্ট ইন্ডিজ-এ ১ আবুধাবি
৫ নভেম্বর বিকেল ৪টা নিউজিল্যান্ড-এ২ শারজাহ
৫ নভেম্বর রাত ৮টা ভারত- বি১ দুবাই
৬ নভেম্বর বিকেল ৪টা অস্ট্রেলিয়া-ওয়েস্ট ইন্ডিজ আবুধাবি
৬ নভেম্বর রাত ৮টা ইংল্যান্ড-দক্ষিণ আফ্রিকা শারজাহ
৭ নভেম্বর বিকেল ৪টা নিউজিল্যান্ড-আফগানিস্তান আবুধাবি
৭ নভেম্বর বিকেল ৪টা পাকিস্তান-বি১ শারজাহ
৮ নভেম্বর রাত ৮টা ভারত-এ২ দুবাই

আইসিসি টি-টোয়েন্টি ওয়ার্ল্ড কাপ 2021 সালের দল গুলোর তালিকা 

আইসিসি টি-টোয়েন্টি ওয়ার্ল্ড কাপ 2021 সালে যে সকল দেশ অংশগ্রহণ করবেতার তালিকা নিচে দেয়া হল । 
১. ভারত 
২. পাকিস্তান 
৩. ইংল্যান্ড 
৪. অস্ট্রেলিয়া 
৫. সাউথ আফ্রিকা 
৬. নিউজিল্যান্ড 
৭. ওয়েস্ট ইন্ডিজ 
৮. আফগানিস্তান 
৯. শ্রীলংকা 
১০. বাংলাদেশ 
১১. নেদারল্যান্ড 
১২. Papua New Guinea
১৩. আয়ারল্যান্ড 
১৪. নামিবিয়া 
১৫. স্কটল্যান্ড 
১৬. ওমান 

টি-টোয়েন্টি কাপ কি?

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট খেলার একটি সংক্ষিপ্ত তম সংস্করণ অথবা শর্ট ভার্শন হিসেবে বিবেচিত । যার সূচনা শুরু হয় 2003 সালে ইংল্যান্ডে আন্তকাউন্টি ক্রিকেট প্রতিযোগিতার মাধ্যমে। ক্রিকেট খেলাটি আরো প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ করে তোলাই হচ্ছে এই খেলার মূল উদ্দেশ্য।  মাঠে দর্শকদেরকে টেনে ধরে রাখা কিংবা টেলিভিশনের পর্দায় দর্শকদেরকে নিরবিচ্ছিন্ন আনন্দ উপহার দেওয়ার জন্যই মূলত টি-টোয়েন্টি খেলার উদ্ভাবন করা হয়।  বর্তমানে টি-টোয়েন্টি ব্যাপক জনপ্রিয় যদি ইংল্যান্ড ক্রিকেট বল ক্রিকেট এই সংক্ষিপ্ত সংস্করণটিকে প্রথমে পাত্তা দেয়নি । 

টি-টোয়েন্টি খেলার মূল আকর্ষণ হচ্ছে একটি দল সর্বোচ্চ 20 ওভার পর্যন্ত তাদের ইনিংসে ব্যাটিং করতে পারবেন।  সচরাচর টি-টোয়েন্টি খেলা সাড়ে তিন ঘন্টা সময় ব্যয় হয় । প্রত্যেক দল 100 মিনিট সময়ের মধ্যে তাদের ইনিংস শেষ করতে বাধ্য থাকে।  মধ্যবর্তী 10 থেকে 20 মিনিট সময় বরাদ্দ রয়েছে বিরতির জন্য। ওয়ানডে অথবা টেস্ট খেলায় ড্রেসিং রুম থেকে ব্যাটসম্যানদের মাঠে প্রবেশ কিংবা প্রস্থান করলেও টি-টোয়েন্টি খেলা দ্রুতলয়ে খেলার উদ্দেশ্যে মাঠের ধারে চেয়ারের সাঁরি দিয়ে নির্মিত বেঞ্চ থেকে আসা যাওয়ার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। 

টি-টোয়েন্টি ওয়ার্ল্ড কাপ কিভাবে এলো? 

ক্রিকেটের ইতিহাসে প্রথমদিকে খেলা বলতেই পাঁচ দিনের টেস্ট ম্যাচ কি বোঝানো হতো।  দিনের পরিক্রমা,  দর্শকদের চাহিদা, দর্শকদেরকে খেলায় নিরবিচ্ছিন্নভাবে ধরে রাখা ইত্যাদি বিষয় মাথায় রেখে দিনে দিনে পাঁচ দিনের টেস্ট খেলার জনপ্রিয়তা কমেছে আরো নতুন নতুন সংস্করণের খেলার প্রচলন শুরু হয়।  তার প্রথম ধাপ হচ্ছে ওয়ানডে ম্যাচ যেখানে পাঁচদিনের দীর্ঘ সময়ে সংক্ষিপ্ত করে একদিনে কিভাবে খেলা শেষ করা যায় সে ব্যাপারে বিভিন্ন ধরনের নিয়ম-কানুন আবিষ্কার করা হয়।  

একটা পর্যায়ে এই খেলাকে আরো সংক্ষিপ্ত করার প্রয়োজন দেখা দেয়।  2003 সালে সর্বপ্রথম টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট ম্যাচ অথবা ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত সংস্করণ কিংবা ক্রিকেটের শর্ট ভার্শন নামে নতুন একটি পদ্ধতিতে খেলার পদ্ধতি আবিষ্কার হয়।  যদি ইংল্যান্ড প্রথম দিকে এটার বিরোধিতা করেছিল কিন্তু বর্তমানে টি-টোয়েন্টি ফরমেটের খেলার জনপ্রিয়তা সবচেয়ে বেশি। বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় টি-টোয়েন্টি খেলার আসর ভারতের আইপিএল নামে পরিচিত। 

এবারের আসর কোথায় অনুষ্ঠিত হবে

2020 সালে অস্ট্রেলিয়াতে অক্টোবর থেকে নভেম্বর মাস পর্যন্ত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলা অনুষ্ঠানের কথা ছিল।  কিন্তু বিশ্বব্যাপী করো করোনা মহামারী আকার ধারণ করে।  তাই এই বিষয়ে ক্রিকেট আইসিসি  সে  বছর টি-টোয়েন্টি ওয়ার্ল্ড কাপ খেলা স্থগিত ঘোষণা করেন । এবং পরবর্তীতে এই খেলা 2021 সালের অক্টোবর থেকে নভেম্বর মাস পর্যন্ত ভারতে আয়োজন করার ঘোষণা দেয়।  তাই এবার টি-টোয়েন্টি ওয়ার্ল্ড কাপ 2021 ভারতে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। যদিও এবারের মেলা ভারতে অনুষ্ঠিত হবে বলে ঘোষণা দেওয়া হয়েছে তবে খেলার ভেন্যু সম্পর্কে কোন ধরনের ধারণা পাওয়া যায়নি। সময়মত সেটা জানিয়ে দেওয়া হবে বলে ধারণা করা হয়। 

এবারের খেলার আয়োজক কোন দেশ

যেহেতু ওয়েবারের খেলা ভারতে অনুষ্ঠিত হবে বলে ঘোষণা করা হয়েছে তাই এবারের খেলার আয়োজন দেশ ভারত। ছবিতে সৌরভ গাঙ্গুলীকে টি-টোয়েন্টি ওয়ার্ল্ড কাপ ট্রফি নিয়ে ছবি তুলতে দেখা গিয়েছে তাই আমরা ধারণা করতে পারি যে অবশ্যই এবারের খেলা ভারত এই আয়োজিত হতে চলেছে। 

টি-টোয়েন্টি খেলার ইতিহাস এবং পটভূমি

টি-টোয়েন্টি খেলার ইতিহাস যেমন প্রাচীন না এইতো 2007 সালের কথা মাত্র।  প্রথম টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হয় এ বছর এই।  প্রথমে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল যে প্রতি দুই বছর অন্তর অন্তর এই খেলাটি অনুষ্ঠিত হবে। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম আসর অনুষ্ঠিত হয়েছিল 2007 সালে দক্ষিণ আফ্রিকায় । ফাইনাল খেলায় ভারত পাকিস্তানকে পরাজিত করার মাধ্যমে শিরোপা লাভ করেছিল। মোট ছয়টি দল এ খেলায় অংশগ্রহণ করবে বলে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয় এবং এখান থেকে দুই দল 2009 সালে বিশ্ব টি-টোয়েন্টি প্রতিযোগিতায় অংশ নিবে ও প্রত্যেকেই প্রাইজমানি বাবদ ২৫০,০০০ মার্কিন ডলার লাভ করবে । এ আসরে ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত দ্বিতীয় প্রতিযোগিতায় পাকিস্তান শিরোপা জয় লাভ করে । 2010 সালে প্রতিযোগিতা ওয়েস্ট ইন্ডিজে অনুষ্ঠিত হয়।  ওই প্রতিযোগিতায় ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়াকে 7 উইকেটের ব্যবধানে হারায়। ২০১৪ সালে দলের সংখ্যা বৃদ্ধি করে ১৬ দলে রূপান্তর করা হয়। 

টি-টোয়েন্টি খেলার নিয়ম 

টি-টোয়েন্টি খেলায় দুটি দল অংশগ্রহণ করে । এটি একটি শর্ট ভার্শন খেলা।  দর্শকদেরকে টানার সময় ধরে উত্তেজিত রাখার জন্য এই শর্ট ভার্সন খেলার আবির্ভাব করা হয় । একটু আগেই এই খেলার নিয়ম সম্পর্কে বলা হয়েছিল কিন্তু আবারও বলছি। টি-টোয়েন্টি খেলায় মোট সাড়ে 3 ঘণ্টার বেশি সময় ধরে খেলা হয় এখানে প্রত্যেক দল 100 মিনিট করে সময় পায় তাদের ইনিংস শেষ করার জন্য।  মাঝখানে 10 থেকে 20 মিনিট সময় চা বিরতি দেওয়া হয়।  অন্যান্য সনাতন খেলাগুলোতে প্লেয়াররা ড্রেসিং রুম থেকে মাঠে নেমে আসে কিন্তু বিষয়টি খেলায় ড্রেসিংরুমের ব্যবস্থা না করে শর্টকাটে খেলা শেষ করার জন্য প্লেয়ারদের কে মাঠের বাইরে চেয়ারে বসিয়ে রাখা হয় । এগুলো হচ্ছে মূলত ভুল নিয়ম-কানুন তবে এর বাইরে অন্যান্য নিয়ম প্রায় একই রকম| 

এবারের টি-টোয়েন্টি খেলার মিডিয়া পার্টনার কারা 

বরাবরের মতো এবারও ক্রিকেট খেলা দেখার জন্য আপনাকে  তেমন কোনো কষ্ট করতে হবেনা| কারণ অনলাইনের যুগে হাতের মুঠোয় খেলা দেখার ব্যবস্থা রয়েছে । বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যবহার করে খেলা দেখা সম্ভব যেমন ফেসবুক ইউটিউব ইত্যাদি। 

 

Reactions

Post a Comment

0 Comments